ট্যাগ আর্কাইভঃ জাতিসংঘ দিবস

জাতিসংঘ দিবস উপলক্ষ্যে সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা-২ বিষয়ে কক্সবাজার জেলায় সংবাদ সম্মেলন

press.07কক্সবাজার, ২১ অক্টোবর ২০১৪: জাতিসংঘ দিবস উপলক্ষ্যে দিবসটির তাৎপর্য তুলে ধরা ও সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে ঢাকাস্থ জাতিসংঘ তথ্যকেন্দ্র, জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা এবং জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি সংস্থা যৌথভাবে কক্সবাজার UNHCR সাব-অফিসে একটি সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে।  স্থানীয় ও জাতীয় পর্যায়ের প্রায় ৫০ জন সাংবাদিক এই প্রেস ব্রিফিংয়ে অংশগ্রহন করেন। বাংলাদেশে জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থার প্রতিনিধি স্টিনা লাংডেল জাতিসংঘ দিবস উদযাপন ও সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার সাফল্য সম্পর্কে সাংবাদিকদের অবহিত করেন। জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি সংস্থার প্রোগ্রাম অফিসার শিরিন আখতার বাংলাদেশের প্রাথমিক শিক্ষার পরিস্থিতি সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরেন। এরপর সাংবাদিকগণ একটি প্রশ্নোত্তর পর্বে অংশ নেন এবং সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা-২ সহ বিভিন্ন বিষয়ে প্রশ্ন উত্থাপন করেন। জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থার উপ-দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ এতে অংশ নেন। সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে নির্মিত একটি ভিডিও অংশগ্রহনকারীদের মাঝে প্রদর্শিত হয়। সাংবাদিকদের জাতিসংঘের তথ্যসামগ্রীসহ একটি করে প্রেস-কিট প্রদান করা হয়। জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থার কক্সবাজার উপ-দপ্তরের সহায়তায় অনুষ্ঠানটির সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিল ঢাকাস্থ জাতিসংঘ তথ্যকেন্দ্র, জাতিসংঘ শরণার্থী সংস্থা এবং জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি সংস্থা।

 

জাতিসংঘ দিবস উপলক্ষ্যে জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি-মুনের বাণী, ২৪ অক্টোবর ২০১৪

বহুমুখী সংকটের এই সময়ে জাতিসংঘের প্রয়োজন আগের চেয়ে আরো অনেক বেশি। দারিদ্র্য, রোগ, সন্ত্রাস, বৈষম্য এবং জলবায়ু পরিবর্তন প্রচন্ডভাবে নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে। আরোপিত শ্রম, মানব পাচার, যৌন দাসত্ব, অথবা কারখানা, কর্মস্থল ও খনিক্ষেত্রে অনিরাপদ অবস্থার কারণে আজও লক্ষ লক্ষ মানুষ শোচনীয় ভাবে শোষণের শিকার হচ্ছে। বিশ্ব অর্থনীতি আজও একটি অসম ক্ষেত্র হিসেবে রয়ে গেছে।
বিস্তারিত পড়ুন

জাতিসংঘ দিবস উপলক্ষে সেমিনার ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

ঢাকা, ২৪ অক্টোবর ২০১৩: বাংলাদেশস্থ জাতিসংঘ কান্ট্রি টিম জাতিসংঘ দিবস পালন উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সন্মেলন কেন্দ্রে গত ২৪ অক্টোবর এক সেমিনার ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। বাংলাদেশস্থ জাতিসংঘের ভারপ্রাপ্ত আবাসিক সমন্বয়কারী  ড. তুষারা ফার্নান্দো’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য প্রদান করেন বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় পররাষ্ট্র্র মন্ত্রী ডা: দিপু মনি।  বাংলাদেশের প্রখ্যাত সমাজকর্মী ও শিক্ষক অধ্যাপক আবদুলাহ আবু সাঈদ বিশেষ অতিথির বক্তব্য প্রদান করেন। জাতিসংঘ তথ্য কেন্দ্রের অধিকর্তা কাজি আলি রেজা দিবসটির প্রতিপাদ্য – উন্নয়নে যুবসমাজ: প্রেক্ষিত বাংলাদেশ – বিষয়ে বক্তব্য রাখেন।  এছাড়া একজন যুব প্রতিনিধিও অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন। এক হাজারেরও অধিক জাতিসংঘ কর্মী, কুটনিতিক, যুবক, সুশীল সমাজ এবং সরকারী ও বেসরকারী প্রতিনিধি অনুষ্ঠানে অংশগ্রহন  করেন।  অনুষ্ঠানের ২য় পর্বে এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। জাতিসংঘ দিবসটি আয়োজনে জাতিসংঘ তথ্য কেন্দ্র কমিউনিকেশন সচিবালয় সেবা প্রদান করে।

 

 

 

জাতিসংঘ দিবস এবং ইউএনফরইউ বিষয়ে গোল-টেবিল বৈঠক

ঢাকা, ২৪ অক্টোবর ২০১৩: জাতিসংঘ তথ্য কেন্দ্র গত ২৪ অক্টোবর ২০১৩ তারিখে জাতিসংঘ দিবস উপলক্ষে কেন্দ্রের সন্মেলন কক্ষে এক গোল- টেবিল বৈঠকের আয়োজন করে। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩০ জন যুব প্রতিনিধি এই সেমিনারে অংশগ্রহন করেন। শুরুতেই জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি-মুন – এর বাণী  এবং ইউ এন ফর  ইউ শিরোনামে দুটি ভিডিও অংশগ্রহনকারীদের সামনে প্রদর্শন করা হয়। জাতিসংঘ তথ্য কেন্দ্রের অধিকর্তা কাজি আলি রেজা জাতিসংঘের লক্ষ্য,  উদ্দেশ্য ও কার্যক্রম সম্পর্কে বক্তব্য প্রদান করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা প্রশ্নোত্তর পর্বে অংশগ্রহন করেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালন করেন জাতিসংঘ তথ্য কেন্দ্রের নলেজ ম্যানেজমেন্ট অফিসার মো. মনিরুজ্জামান।

 

 

ইউএন কমিউনিকেশন গ্রুপের সভা অনুষ্ঠিত – ২৬ আগস্ট ২০১৩

জাতিসংঘ সংস্থাসমূহের সমন্বয়ে গঠিত ইউএন কমিউনিকেশন ও এডভোকেসি গ্রুপের সভা গত ২৬ আগস্ট জাতিসংঘ তথ্য কেন্দ্রের মিটিং রুমে অনুষ্ঠিত হয়। ১২ টি জাতিসংঘ সংস্থার ১৫ জন সদস্য এতে অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জাতিসংঘ তথ্য কেন্দ্রের অধিকর্তা কাজী আলী রেজা। তিনি সভায় অনুষ্ঠিতব্য জাতিসংঘ দিবসের প্রস্তাবিত কার্যক্রমের উপর আলোকপাত করেন। এরপর তথ্য কেন্দ্রের নলেজ ম্যানেজমেন্ট অফিসার মোঃ মনিরুজ্জামান পাওয়ার পয়েন্টের মাধ্যমে তথ্য কেন্দ্র কর্তৃক প্রণীত দুই মাস ব্যাপী জাতিসংঘ দিবস আয়োজনের  জন্য একটি ধারণাপত্র উপস্থাপন করেন।  বিস্তারিত পড়ুন

জাতিসংঘ দিবস উপলক্ষে মহাসচিব বান কি-মুনের বাণী – ২৪ অক্টোবর ২০১২

২৪ অক্টোবর ২০১২

আমরা গভীর বিশৃংখলা, ক্রান্তিকাল ও রূপান্তরের মধ্য দিয়ে সময় পার করছি। নিরাপত্তাহীনতা, অসমতা ও অসহিষ্ণুতা বৃদ্ধি পাচ্ছে। বৈশ্বিক ও জাতীয় প্রতিষ্ঠানসমূহকে পরীক্ষার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। এসব ঝুঁকি সত্বেও জাতিসংঘকে শান্তি, উন্নয়ন, মানবাধিকার, আইনের শাসন এবং নারী ও যুবকদের ক্ষমতায়নের মতো কর্মকান্ডগুলোর বিস্তৃতি ঘটাতে হবে।

বিভিন্ন ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। ২০০০ সাল থেকে এ পর্যন্ত চরম দারিদ্র অর্ধেকে নামিয়ে আনা হয়েছে। অনেক দেশই গণতান্ত্রিক পরিবর্তনের পথে রয়েছে। উন্নয়নশীল বিশ্বে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির উৎসাহব্যঞ্জক লক্ষণ দেখা যাচ্ছে। বিস্তারিত পড়ুন