জাতিসংঘ দিবসে কক্সবাজার শহীদ মিনারে ‘সর্বজনীন প্রাথমিক শিক্ষা’ বিষয়ে পথনাটক মঞ্চস্থ

banner-10Play.01কক্সবাজার, ২১ অক্টোবর ২০১৪: জাতিসংঘ দিবস পালন উপলক্ষ্যে ঢাকাস্থ জাতিসংঘ তথ্যকেন্দ্র (UNIC Dhaka), জাতিসংঘ শরণার্থী সংস্থা (UNHCR) ও জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি সংস্থা (UNESCO) যৌথভাবে কক্সবাজার জেলায় সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার ২য় লক্ষ্য অর্থাৎ  সর্বজনীন  প্রাথমিক শিক্ষা  বিষয়ে গত ২১ অক্টোবর ২০১৪ একটি পথনাটকের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানটির মূল উদ্দেশ্য ছিল সমাজের সকল স্তরের মানুষের মাঝে প্রাথমিক শিক্ষার ব্যাপারে সচেতনতা সৃষ্টি করা যা জীবনব্যাপী শিক্ষা ও জ্ঞানার্জনের ভিত্তি হিসেবে বিবেচিত। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সংশ্লিষ্ট সংস্থার প্রতিনিধিরা প্রাথমিক শিক্ষার অগ্রগতির অভিন্ন লক্ষ্য অর্জনে তাদের প্রতিশ্রুতির কথা পুনঃব্যক্ত করেন।  ত্রাণ, শরণার্থী ও প্রত্যাবসন বিষয়ক কমিশনার ও বাংলাদেশ সরকারের যুগ্ম সচিব জনাব ফরিদ উদ্দিন ভুইয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির আসন অলঙ্কৃত করেন কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক জনাব রুহুল আমিন। জাতিসংঘ শরণার্থী সংস্থার প্রতিনিধি স্টিনা লাংডেল অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য প্রদান করেন। অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জাপান দূতাবাসের অনারারি কন্সাল জেনারেল মুহাম্মদ  নুরুল ইসলাম, শিক্ষাবিদ অধ্যাপক মোস্তাক আহমেদ, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি এস. এম. সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী,  সহকারী পুলিশ সুপার নতুন চাকমা এবং সহকারী সিভিল সার্জন ডা. মহিউদ্দিন মো. আলমগীর। ঢাকাস্থ জাতিসংঘ তথ্যকেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জনাব মোঃ মনিরুজ্জামান অনুষ্ঠানটি সঞ্চালন করেন।  জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধি, সরকারী কর্মকর্তা, এনজিও প্রতিনিধি, সাংবাদিক, স্বেচ্ছাসেবক, সুশীল সমাজ ও সাধারণ জনগণ সহ প্রায় ৫ শতাধিক লোক অনুষ্ঠানটিতে অংশগ্রহণ করেন। এছাড়াও কক্সবাজার শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে এক রক্তদান কর্মসূচীর আয়োজন করা হয়। জাতিসংঘের কমিউনিকেশন টিম ও জাতিসংঘ কান্ট্রি টিমের পরিকল্পনায় ‘সাতটি বিভাগ, সাতটি পথনাটক, সাতটি এমডিজি পরিকল্পনার অংশ হিসেবে কক্সবাজারে অনুষ্ঠিত এই অনুষ্ঠানটির সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিল ঢাকাস্থ জাতিসংঘ তথ্যকেন্দ্র, জাতিসংঘ শরণার্থী সংস্থা ও জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি সংস্থা।